,



‘স্ট্রাটেজিক পার্টনার আনতে ব্যর্থ হলে পুঁজিবাজারের জন্য দু:সংবাদ’

Spread the love

সঠিক সময়ে স্ট্রাটেজিক পার্টনার অর্থাৎ কৌশলগত বিনিয়োগকারী আনতে ব্যর্থ হলে পুঁজিবাজারের জন্য দু:সংবাদ হবে বলে মন্তব্য করেছেন পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক খায়রুল হোসেন।

তিনি বলেন, অল্প সময়ের মধ্যে দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জ ডি-মিউচ্যুলাইজড হয়েছে। তবে এর প্রধান কাজ এখনো বাকি রয়েছে। তা হলো আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে স্ট্রাটেজিক পার্টনার আনা। নির্ধারিত এই সময়ের মধ্যে স্ট্রাটেজিক পার্টনার আনতে না পারলে বাজারের জন্য তা হবে দু:সংবাদ।

শনিবার (১৬ জুলাই) রাজধানীর মতিঝিল মধুমিতা ভবনে ডিএসই ব্রোকারস অ্যাসোসিয়েশনের নতুন অফিসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। এর আগে লাল ফিতা কেটে উদ্বোধন করেন তিনি।

পুঁজিবাজারে আস্থার জন্য স্বচ্ছতা প্রয়োজন উল্লেখ করে খায়রুল হোসেন বলেন, একটি শক্তিশালী পুঁজিবাজার গঠনের লক্ষ্যে নিরন্তর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বিএসইসি। এর অংশ হিসাবে পাবলিক ইস্যু রুলস-২০১৫ গঠন করা হয়েছে। এতে পুঁজিবাজারে আসতে হলে কোম্পানিগুলোকে অনেক বেশি তথ্য প্রদান করতে হয়। যাতে অনেক স্বচ্ছতা এসে গেছে।

পুঁজিবাজারের উন্নয়নে ডিবিএ’র কর্মকাণ্ডে স্বচ্ছতা ও বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে দূরত্ব কমিয়ে আনার আহবান জানান খায়রুল হোসেন। প্রত্যেকটি ব্রোকারেজ হাউজকে গুজব ছড়িয়ে বিনিয়োগকারীদেরকে প্রভাবিত করা বন্ধেরও আহবান জানান তিনি।

খায়রুল হোসেন বলেন, পুঁজিবাজারের স্বার্থে অনেক সংস্কার করা হয়েছে এবং আরো সংস্কারের দরকার আছে। তবে সংস্কারের কারণে কারো কাজে সমস্যা হলে তা সমাধান করা হবে।

অনুষ্ঠানে পুঁজিবাজারের স্বার্থে মার্কেট মেকিং রুল ও পলিসিগত বিষয়ে কাজ করা হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন কমিশনার অধ্যাপক স্বপন কুমার বালা।

সভাপতির বক্তব্যে ডিএসই ব্রোকারস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আহসানুল ইসলাম বলেন, আগামী তিনমাসের মধ্যে ডিএসই ব্রোকারসের নির্বাচন হবে। এ নির্বাচনে নতুন নেতৃত্ব উঠে আসবেন।

তিনি বলেন, কমিশনের নেতৃত্বে সারা দেশে বিনিয়োগকারীদের আর্থিক শিক্ষা প্রদান করা হবে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ডিএসই’র নতুন এমডি একেএম মাজেদুর রহমান। তিনি বলেন, অর্থনীতির সঙ্গে পুঁজিবাজার অঙ্গাঅঙ্গিভাবে জড়িত। এতোদিন অর্থনীতির অনান্য সেক্টরে কাজ করেছি। এখন পুঁজিবাজার নিয়ে কাজ করবো। এটি আমার জন্য নতুন চ্যালেঞ্জ।

অনুষ্ঠানে কমিশনার সালাম শিকদার, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) চেয়ারম্যান বিচারপতি সিদ্দিকুর রহমান মিয়া ও ডিএসই ব্রোকারস অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

অারো খবর