,



বর্ষার সব মজাদার খাবার

Spread the love

রাত থেকেই রিমঝিম বৃষ্টি। সকাল বেলাও আকাশের মুখ গোমড়া। পানি ঝরছে তখনও। আর এমন আবহাওয়ায় মন মরা হয়ে বসে না থেকে ভোজন রসিক মানুষ গুলো রবিন্দ্র সংগীতের তালে তালে বর্ষার মজাদার সব খাবার তৈরী করে পরিবারের ছোট, বড়, সব সদস্যের বায়না, আজ ভুনা খিচুরি হবে, ঝাল মাংস দিয়ে…

গরুর মাংসের ভুনা খিচুড়ি

যা লাগবে: পোলাওয়ের চাল ১ কেজি, গরুর মাংস ২ কেজি, পেঁয়াজ স্লাইস ১ কাপ, আদা-রসুন বাটা ২ টেবিল চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, ধনিয়া জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া ২ চা চামচ, দারুচিনি এলাচ ৪-৫ টুকরা, লবঙ্গ ৪টি, শাহি জিরা ১ চা চামচ, পেস্তাদানা বাটা ২ চা চামচ, কাজুবাদাম বাটা ১ টেবিল চামচ, জায়ফল-জয়ত্রী বাটা আধা চা চামচ, কাঁচামরিচ ১০-১৫টি, তেজপাতা ২টি, মটরশুঁটি ২-৩ কাপ, ছোট আলু ২৫০ গ্রাম, টকদই আধা কাপ, গুঁড়াদুধ ১ কাপ, সরিষার তেল ২ কাপ, কেওড়া পানি ১ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো।

যেভাবে করবেন

প্রথম পর্যায়: মাংস টুকরা করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। মটরশুঁটি আলু সামান্য লবণ মিশিয়ে সিদ্ধ করে ভেজে রাখুন। একটি পাত্রে মাংস, টকদই, আদা, রসুন, ধনিয়া, জিরা, মরিচ গুঁড়া, পেস্তাদানা বাটা ও লবণ ভালো করে মিশিয়ে ৩০ মিনিট ম্যারিনেট করে রাখুন। হাঁড়িতে তেল গরম করে দারুচিনি এলাচ লবঙ্গ তেজপাতা হাল্কা ভাজা পেঁয়াজ বাদামি করে ম্যারিনেট করা মাংস দিয়ে কিছুক্ষণ কষিয়ে ২-৩ কাপ পরিমাণ পানি দিয়ে নেড়ে মাঝারি আঁচে রান্না করুন। মাংস সিদ্ধ হয়ে গেলে তুলে রাখুন।

দ্বিতীয় পর্যায়: এবার ওই হাঁড়িতে মাংসের তেল ও ঝোল ছেঁকে নিয়ে চালের দেড়গুণ পানি, গুঁড়াদুধ ও লবণ দিন। চাল কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রেখে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে হাঁড়িতে দিয়ে কাঁচামরিচ, দারুচিনি, এলাচ দিয়ে নেড়ে মৃদু আঁচে ২০ মিনিট রান্না করুন। চাপের পানি শুকিয়ে থকথকে হয়ে এলে রান্না করা মাংস মটরশুঁটি ও আলু দিয়ে ১০ মিনিট দমে রাখুন। এবার কেওড়া পানি ছিটিয়ে চাপ মাংস উপর-নিচ করে মিশিয়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

বেগুন বাহার

যা লাগবে: বেগুন ২টি, পেঁয়াজ কুচি ২ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ বাটা ১ টেবিল চামচ, হলুদ মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, আদা রসুন বাটা ১ চা চামচ, সরিষা বাটা আধা চা চামচ, কাঁচামরিচ ফালি ৪-৫টি, পেস্তা বাটা ১ টেবিল চামচ, জিরা বাটা সামান্য, তেঁতুলের মাড় আধা কাপ, সরিষার তেল আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো।

যেভাবে করবেন: বেগুন ধুয়ে মাঝ থেকে কেটে ২ টুকরা করে সামান্য হলুদ, মরিচ গুঁড়া লবণ মিশিয়ে তেলে হাল্কা ভেজে নিন। কড়াইয়ে তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে হাল্কা ভেজে আদা-রসুন, পেঁয়াজ বাটা, হলুদ, মরিচ, জিরা বাটা, সরিষা বাটা, লবণ ও সামান্য পানি দিয়ে মশলা কষিয়ে বেগুন ভাজা ও তেঁতুলের মাড় দিয়ে ৩-৪ মিনিট রান্না করুন। এতে কাঁচামরিচ পেস্তা বাটা দিয়ে নেড়ে ২-৩ মিনিট পর প্লেটে তুলে সুন্দর করে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

গরুর মাংস ঝাল ভুনা

যা লাগবে: গরুর মাসং ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, হলুদ-মরিচ গুঁড়া ২ টেবিল চামচ, আদা রসুন বাটা দেড় টেবিল চামচ, ধনিয়া-জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, গরম মশলা গুঁড়া ১ চা চামচ, জয়ফল-জয়ত্রী বাটা আধা চা চামচ, গোলমরিচ ৩-৪টি, দারুচিনি এলাচ ৩-৪ টুকরো, শাহজিরা বাটা আধা চা চামচ, লবঙ্গ ৪-৫টি, তেজপাতা ২টি, টকদই আধা কাপ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ ৫-৬টি, তেল ১ কাপ, লবণ স্বাদমতো।

যেভাবে করবেন:

মাংস টুকরো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। একটি পাত্রে মাংস, টক দই, লেবুর রস, বাটা গুঁড়া মশলা ও লবণ দিয়ে মাংস ৩০ মিনিট ম্যারিনেট করে রাখুন। ফ্রাইপ্যানে তেল গরম করে দারুচিনি, এলাচ, তেজপাতা, লবঙ্গ, গোলমরিচ হালকা ভেজে পেঁয়াজ বাদামি করে ম্যারিনেট করা মাংস দিয়ে ভালোভাবে মাঝারি আঁচে কষাতে থাকুন। সামান্য পানি, স্বাদমতো লবণ, জয়ফল-জয়ত্রী বাটা দিয়ে নেড়ে ঢেকে রাখুন। মাংস সিদ্ধ হয়ে পানি শুকিয়ে তেল ওপরে উঠে এলে কাঁচামরিচ দিয়ে ভুনা ভুনা করে নামিয়ে পরিবেশ করুন।

সবজি খিচুড়ি

যা লাগবে: পোলাও চাল ১ কেজি, মুগডাল ভাজা ১ কাপ, মসুরডাল ১ কাপ, ফুলকপি গাজর কিউব ১ কাপ, পেঁপে, বরবটি কিউব ১ কাপ, মটরশুঁটি ১ কাপ, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, হলুদ মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, আদা-রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, জিরা গুঁড়া আধা চা চামচ, কাঁচামরিচ ৫-৬টি, দারুচিনি এলাচ ৪-৫ টুকরা, তেজপাতা ২টি, ঘি ১ টেবিল চামচ, তেল ৩ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো।

যেভাবে করবেন: চাল-ডাল ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখুন। হাঁড়িতে তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামি করে ভেজে অর্ধেক তুলে রেখে তেজপাতা, দারুচিনি, এলাচ, জিরা হাল্কা ভেজে আদা-রসুন-মরিচ গুঁড়া চাল ডাল কিছুক্ষণ ভাজা ভাজা করে হাঁড়িতে পরিমাণমতো পানি লবণ দিয়ে নাড়তে থাকুন। ৫ মিনিট পর সবজি কাঁচামরিচ দিয়ে মৃদু আঁচে ২০ মিনিট রান্না করুন। চাল ডাল সবজি সিদ্ধ হলে ঢাকনা খুলে ঘি ছিটিয়ে পেঁয়াজ বেরেস্তা দিয়ে ভুনা মাংস ঝাল রেজালার সঙ্গে আচার দিয়ে পরিবেশন করুন।

ইলিশ মাছের শুক্তো

যা লাগবে: ইলিশ মাছ ১টি, উচ্ছে-ঝিঙে ১ কাপ, কাঁচকলা বেগুন কিউব ১ কাপ, পেঁপে-পটোল কিউব ১ কাপ, কালোজিরা ১ চা চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, আদা বাটা আধা চা চামচ, কাঁচামরিচ ২-৩টি, দুধ আধা কাপ, তেল আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো।

যেভাবে করবেন: মাছের আঁশ ফেলে কেটে ভালো করে ধুয়ে টুকরো করে হলুদ-লবণ মেখে রাখুন। কিউব করা সবজি ধুয়ে নিন। কড়াইয়ে তেল গরম করে মাছের টুকরোগুলো বাদামি করে ভেজে রাখুন। ওই তেলে কালোজিরা ফোড়ন দিন; এবার সবজিগুলো দিয়ে ভালো করে নাড়াচাড়া করে সামান্য পানি ও লবণ দিয়ে কিছুক্ষণ ঢেকে রাখুন। সবজি সিদ্ধ হয়ে গেলে মাছের টুকরোগুলো দিয়ে কাঁচামরিচ দিন। ঝোল ফুটে উঠলে চুলার আঁচ বন্ধর করে দুধ দিয়ে ৫ মিনিট ঢেকে রেখে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

রূপচাঁদা মাছের ফ্রাই

যা লাগবে: রূপচাঁদা মাছ ৫-৬ পিস, মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, আদা-রসুন বাটা ১ চা চামচ, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, জিরা বাটা ২ চা চামচ, লেবুর রস ২ টেবিল চামচ, মাছের মশলা আধা চা চামচ, সয়াসস ১ টেবিল চামচ, তেল ভাজার জন্য, লবণ স্বাদমতো।

যেভাবে করবেন: মাছ কেটে পরিষ্কার করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে মাছের উভয় পাশে ছুরি দিয়ে লম্বা লম্বা করে ২-৩টি আঁচ কেটে নিন। একটি পাত্রে মাছ লেবুর রস সয়াসস লবণ ও সব মশলা ভালো করে মিশিয়ে ২০ মিনিট ম্যারিনেট করে রাখুন।

ফ্রাইপ্যানে তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামি করে তুলে রাখুন। ওই তেলে ম্যারিনেট করা মাছ এপিঠ ওপিঠ বাদামি করে ভেজে পেঁয়াজ বেরেস্তা ছড়িয়ে সুন্দর করে সাজিয়ে পরিবেশ করুন।

অারো খবর