,



পুরান ঢাকার ঢাকেশ্বরী মন্দিরের কাছে র‌্যাবের সঙ্গে ‘গোলাগুলিতে’ একজন নিহত,আহত এক।  

Spread the love
বৃহস্পতিবার বিকালে একটি প্রাইভেটকার আরোহীদের সঙ্গে ওই ‘বন্দুকযুদ্ধের’ পর ঘটনাস্থল থেকে দুটি আগ্নেয়াস্ত্র ও ২৭ হাজার টাকা উদ্ধার হয় বলে র‌্যাব-১০ এর অপারেশন অফিসার সহকারী পুলিশ সুপার সোহরাব হোসাইন জানান। তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ছিনতাইকারী সন্দেহে ওই গাড়ির দিকে র‌্যাব সদস্যরা এগিয়ে গেলে তাদের লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণের পর র‌্যাব পাল্টা গুলি ছোড়ে। গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত ব্যক্তির নাম আলমগীর (৩৫), তার বিস্তারিত পরিচয় জানায়নি র‌্যাব। আহত আব্দুল বারেককে (৪২) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। র‌্যাব কর্মকর্তা সোহরাব বলেন, সম্প্রতি ঢাকেশ্বরী মন্দির ও এর আশপাশে বেশ কয়েকটি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। “পরে গোয়েন্দা তথ্যে জানা যায়, একটি ছিনতাইকারী চক্র ওয়ারিসহ আশপাশের এলাকায় অবস্থান করছে এবং তারা আরেকটি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটাবে।” এই তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল সকাল থেকে ওই এলাকায় দায়িত্ব পালন করে জানিয়ে তিনি বলেন, “বিকালে ঢাকেশ্বরী মন্দির এলাকায় একটি প্রাইভেটকার দেখে সন্দেহ হয়। র‌্যাব ওই গাড়ির দিকে এগিয়ে এলে ভেতর থেকে র‌্যাব সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি করা হয়। “এ সময় গাড়ি ধাওয়া করতে করতে র‌্যাবও পাল্টা গুলি করে। বেশ কিছু দূর ধাওয়া করার পর ঢাকেশ্বরী মন্দিরের কাছে গাড়ি থামিয়ে দুইজন গুলি করতে করতে পালানোর চেষ্টা করে। তাদের একজন পালিয়ে গেলেও র‌্যাবের গুলিতে অপরজন আহত হয়ে পড়ে যায়। একই সময় প্রাইভেটকারের আসনে বসা আরেকজন গুলিবিদ্ধ হয়।” এ সময় ওই এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। গোলাগুলি থামার পর কয়েকশ মানুষ রাস্তায় নেমে বলে র‌্যাব কর্মকর্তা সোহরাব জানান। তিনি বলেন, দুইজনকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলে নেওয়ার পর রাত পৌনে ৯টার দিকে চিকিৎসকরা আলমগীরকে মৃত ঘোষণা করেন। তার গলায় গুলি লেগেছিল। চালকের আসনে থাকা বারেকের পায়ে গুলি লেগেছে। তাকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। গোলাগুলির পর প্রাইভেটকারটি জব্দের পাশাপাশি একটি রিভলবার, একটি পিস্তল, ১৬ রাউন্ড গুলি, নগদ ২৭ হাজার টাকা ও একজনের জাতীয় পরিচয়পত্র উদ্ধার করা হয় বলে সোহরাব জানান।

 

অারো খবর