,



চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় বীর মুক্তিযোদ্ধার উপর সন্ত্রাসী হামলা!

Spread the love

চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় বীর মুক্তিযোদ্ধার উপর সন্ত্রাসী হামলা!

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ পরকীয়া প্রেমে বাধা দেয়ায় সস্ত্রাসী হামলার স্বীকার হয়েছেন রণাঙ্গনের একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা, সর্বজনশ্রদ্ধেয় শিক্ষক আনোয়ার হোসেন পাটোয়ারি। এই ঘটনাটি ঘটেছে চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি উপজেলার টামটা উত্তর ইউনিয়নের বোস্তা গ্রামে। এই হামলার প্রেক্ষিতে দোষীদের শাস্তি দাবি করে শাহরাস্তি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ দাখিল করেছেন হামলার স্বীকার মুক্তিযোদ্ধা।

অভিযোগে বলা হয়, ইছাপুরা গ্রামের আঃ করিমের ছেলে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, লম্পট নূর নবী (মিলন) কিছুদিন যাবত পাশের এক মহিলার বাড়িতে আসা-যাওয়া করতো। ঐ মহিলার স্বামী একজন প্রবাসী। এলাকায় এই বিষয়টি নিয়ে কানাঘুষা চলতে থাকে দীর্ঘদিন । এলাকাবাসী বিষয়টি পছন্দ না করলেও মিলনের ভয়ে কেউ মুখ খুলছে না। দুই একজন বাধা দিলেও তারা মিলনের ভয়ে চুপ হয়ে যায়। চিহ্নিত সন্ত্রাসী নূর নবী (মিলন) এসব কানাঘুষার মূলহোতা সন্দেহে বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেন মাস্টারের উপর গত ১ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার সকাল সাতটার সময় স্থানীয় বাজারে তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে হামলা করে। পরে স্থানীয় জনগণ মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেনকে অচেতন অবস্থায় শাহরাস্তি উপজেলা হাসপাতাল কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়।

উল্লেখ্য সন্ত্রাসী নূর নবী মিলনের বিরুদ্ধে হাজীগঞ্জ থানায় নারী নির্যাতন মামলা রয়েছে। এদিকে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার উপর হামলায় বিস্ময় প্রকাশ করেছেনেএলাকার সচেতন জনগণ। যাঁদের শ্রম-ঘাম ও ত্যাগের বিনিময়ে আজকের বাংলাদেশ তাঁদের উপর হামলাকারী সন্ত্রাসীরা কারা? এদেরকে মদর্দদানকারীরা কারা? নিজের স্বাধীন করা দেশে নিজেই লাঞ্চিত হবার চেয়ে লজ্জার আর কি থাকে! জনগণ এখন স্থানীয় প্রশাসনের দিকে তাঁকিয়ে আছে। তাঁদের ভূমিকায় হয়তো নিপাত হবে সন্ত্রাসী নূর নবী মিলনের অপরাধের সাম্রাজ্য! সুবিচার পাবে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা! নাকি স্থানীয় প্রশাসনও নূর নবী মিলনের ক্ষমতার কাছে অসহায়!

এবিষয়ে বিস্তারিত জানতে শাহরাস্তি থানার ওসির মিজানুর রহমানের ০১৭১৩৩৭৩৭১৬ নম্বর মোবাইল ফোনে যোগাযোগ কর‍া হয়েছে, কিন্তু ওসি ফোন না ধরায় তার মতামত জানা  সম্ভব হয় নাই ।

অারো খবর