,



কলমের কালি বন্দুকের গুলির চেয়েও শক্তিশালী

Spread the love

images-27 নকুল চন্দ্র দে পাপ্পু:
এখনো পৃথিবীতে প্রচুর মানুষ আছেন যারা মানবাধিকার আইন রক্ষার চেষ্টায় প্রতিনিয়ত সংগ্রাম করে চলছেন। তাদের এই সংগ্রাম, শিক্ষা,সাহসীকতা উক্তি,সত্যের কলমের শক্তি, অন্যায়ের বিরুদ্ধে লেখা ও বলা, সবই সমাজ ও দেশের শান্তি ও সমতা অর্জনের লক্ষ্যে এবং জনমানুষের কল্যানের লক্ষ্যে। মানুষের মৃত মানবতা কে জীবিত করতে পারে প্রকৃত বিদ্যাময়ী কলম। যে কলম অস্ত্রের ন্যায় রুখে দাঁড়ায় অন্যায়ের প্রতিবাদে। পৃথিবীতে স্পষ্টবাদী এবং সত্যবাদীদের হাতে কলম ও কলমের সত্য লেখনীর প্রতিবাদ আছে বলেই, আজও অপরাধীদের বিচার হচ্ছে এবং হবে। সমাজ ব্যবস্থার বা সমাজ কুসংস্কারের ক্ষমতার মৌহে অন্ধ ব্যক্তিরা নিজেদের অযুক্তিক মানবতা প্রতিষ্ঠার জন্যে সত্যবাদী আপসহীন মানুষদেরকে নির্বিচারে হত্যা করছে, হুমকী দিচ্ছে, আহত করছে, লাঞ্চিত ও ধর্ষণ করছে। অথচ এই সত্যবাদী আপসহীন মানুষগুলোর খুব একটা চাহিদা নেই। শুধু সত্যিকারের মানুষ হিসাবে তার দেশ ও সমাজের আদর্শগত সম্মানটুকু নিয়ে বাঁচতে চায়। সন্ত্রাসীরা ভাবছে এই সকল সত্যরক্ষা মুক্তমনা সমাজকর্মীদেরকে মেরে ফেললেই হয়তো উন্নয়নের সকল পথ বন্দ হয়ে যাবে, সমগ্র পেক্ষাপট পরিবর্তীত হয়ে যাবে। কিন্তু না!! কিছুই পরিবর্তন হবে না বরং দুর্বলতা, ভয় আর নিরাশার লজ্জাজনক মৃত্যু ঘটবে। আর সেই মৃত অনুভূতি জায়গায় স্থান করে নিবে সততা, সাহসীকতা,শক্তি ও মত স্বাধীনতা ক্ষমতা। সৃষ্টি হবে সেই কলমের কালির নীলকন্ঠে চিৎকার করে বলবে – কলমের কালি বন্দুকের গুলির চেয়েও একশতাধিক শক্তিশালী। এই কলম নামে শক্তিশালী বন্দুকের স্পর্শতা দেখেই ভয়ে ধ্বংস হবে নিকৃষ্ট সন্ত্রাসীরা। আর জয় হবে সত্যবাদী মুক্তমনা সত্য প্রকাশের কলমদারীদের।

অারো খবর