,



এটিএসআই সুজা হত্যার প্রধান আসামি বন্দুকযুদ্ধে নিহত

Spread the love

পাবনার ঈশ্বরদীর পাকশী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এটিএসআই সুজাউল হত্যা মামলার প্রধান আসামি রুবেল হোসেন (২৫) পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন।

বুধবার (১৫ জুন) ভোর পৌনে ৩টার দিকে পাকশী হার্ডিঞ্জ ব্রিজের পাশে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। নিহত রুবেল ঈশ্বরদী উপজেলার দিয়ারবাঘাইল গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিমান কুমার দাস বাংলানিউজকে জানান, মঙ্গলবার (১৪ জুন) দিবাগত রাত ১১টার দিকে ঈশ্বরদী উপজেলার দিয়ার বাঘইল রেললাইনের পাশ থেকে রুবেলকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যানুযায়ী আরেক আসামি ইবরা হোসেনকে গ্রেফতার জন্য রুবেলকে নিয়ে পদ্মার চরে অভিযানে যায় পুলিশ।

সেখানে পৌঁছানো মাত্র পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে অপর আসামিরা। এ সময় আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। এসময় রুবেল পালাতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হয়। কিছু সময় বন্দুকযুদ্ধ চলার পর হামলাকারীরা পিছু হটলে ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশী রিভলবার ও ২ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

পরে গুলিবিদ্ধ রুবেলকে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

২০১৫ সালের ৪ অক্টোবর রাতে ঈশ্বরদীর পাকশী পুলিশ ফাঁড়ির এটিএসআই সুজাউল ইসলামকে (৩৫) হাত-পা, মুখ বেঁধে শ্বাসরোধে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। পরদিন ৫ অক্টোবর সকালে পাকশী পেপার মিলস কলোনি সংলগ্ন হলুদের ক্ষেত থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় পাকশী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই রেজাউল করিম বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় এখন পর্যন্ত ৫ জনকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

অারো খবর